কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো হচ্ছে আম, শনাক্ত করুন যে ৩ টি কৌশলে

0
89

কে এম বাবুল, গাইবান্ধা (রংপুর) থেকেঃ গ্রীষ্মের মরসুম আসার সাথে সাথে যে ফলের নাম মনের মধ্যে প্রথমে আসে তা হচ্ছে আম। আম এমন একটি ফল যা সুস্বাদু পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর। কিছু ব্যবসায়ী আম পাকার আগেই, রাসায়নিক ব্যবহার করে আম পাকিয়ে বিক্রি করে। এ জাতীয় আম সাধারণ স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হিসাবে বিবেচিত হয় না। আপনি যদি কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো আম কেনাকাটা এড়াতে চান তবে আপনার কিছুটা সতর্ক হওয়া দরকার। আপনি যাতে সঠিক আমের সনাক্ত করতে পারেন তার জন্য আজকের প্রতিবেদন মন দিয়ে পড়ুন।
১. আমের রঙ চিনতেঃ
আমের কেনার সময় আমের রঙ দেখতে ভুলবেন না। রাসায়নিক দিয়ে পাকানো আমে সবুজ দাগগুলি উপস্থিত থাকে। যারা রাসায়নিকের ব্যবহার করে তাদের আম সঠিক রঙের ঠিক হয় না। আমের নিজস্ব পাকা রঙ দেখা যায় না। এগুলি ছাড়াও আমের আকারটি কেমন তাও দেখুন। রাসায়নিক পাকা আমগুলি আকারে অত্যন্ত ছোট এবং তাদের বেশিরভাগই নরম নরম বলে মনে হয়। এগুলি বাদে, যদি একটি চিহ্ন দেখতে পান যেখানে একটি সাদা বা নীল চিহ্ন রয়েছে, তবে এটি মোটেও কেনা উচিত নয়। এইভাবে আপনি কেমিক্যাল দেওয়া আম সনাক্ত করতে সক্ষম হবেন।
২. এই ভাবে পরীক্ষা করুনঃ
আম কেনার সময়, আমগুলিকে এক বালতি জলে রাখুন এবং দেখুন কোন আমগুলি ডুবে যাচ্ছে এবং কোন আমগুলি জলের উপরের পৃষ্ঠে রয়েছে। যেগুলো জলে ডুবে গিয়েছে সেগুলো প্রাকৃতিকভাবে পাকা হয়। আর যদি কোনও আম ভাসমান হয় তবে বুঝুন যে এটি সাধারণ রাসায়নিক দিয়ে পাকানো হয়েছে।
৩. স্বাদ চিহ্নিত করুনঃ
পাকা এবং মিষ্টি আমের সনাক্ত করা খুব সহজ। গাছ পাকা আমের বোটার কাছে খুব সুন্দর মিষ্টি গন্ধ থাকে। যা কেমিক্যাল দিয়ে পাকানো আমে খুবই হালকা পাওয়া যায়। তাই আম কেনার সময় তা হাতে নিয়ে নাকের কাছে ধরুন। যদি মিষ্টি আমের ভরপুর সুভাস পান তাহলে জানবেন আমটা গাছ পাকা। না পেলে বুঝে নেবেন তা রাসায়নিক ব্যবহার করে পাকানো হয়েছে।
তাছাড়া আমের গায়ে আলতো চাপ দিয়ে দেখুন বুঝে যাবেন তা গাছ পাকা কিনা। আমের খোসার উপর আঙুল দিয়ে চাপ দিলে যদি তা ভিতরে ডুকে গিয়ে আবার বাইরে বেরিয়ে আসে তাহলে বুঝবেন গাছ পাকা। যদি টেপার পর আম কুচকেই থাকে বুঝে যাবেন ভালো না। আম না কেনাই ভালো তখন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here