ছাত্র ছাত্রীদের রেজিষ্ট্রেশন ফি অতিরিক্ত আদায় করে যাচ্ছে প্রধান শিক্ষক হারুন অর রশিদ ! পর্ব-০৪

0
34
এম এ কাদের, সরজমিন প্রতিবেদকঃ
হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার ১০নং ছাতিয়াইন ইউপির “ছাতিয়াইন বিশ্বনাথ হাই স্কুল এন্ড কলেজে দুর্নীতির মহা উৎসবের অভিযোগ উঠেছে” ।
রবিবার (২৮ এপ্রিল) সকালে ছাতিয়াইন বিশ্বনাথ হাই স্কুল এন্ড কলেজের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির খবর জানতে সরজমিনে অনুসন্ধানে গেলে ওই স্কুল এন্ড কলেজের দুর্নীতি ও অনিয়ম বেরিয়ে আসে। অনুসন্ধানে জানা যায়, ঐ স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক হারুনুর রশিদ শিক্ষা বোর্ডের নোটিশের কোন নিয়ম নীতি মানছে না। যেখানে ৬ষ্ঠ শ্রেণীর রেজিষ্ট্রেশনের জন্য বোর্ড নির্ধারন করেছে ৬৮ টাকা, সেখানে তিনি ব্যক্তিগত ভাবে নোটিশ রেজিস্ট্রার খাতায় উল্লেখ করে রেখেছেন ১২০ টাকা। এমনি করে ৬ষ্ঠ শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী পর্যন্ত অতিরিক্ত টাকা আদায় করে যাচ্ছে বলে সরজমিনে রেজিস্ট্রার খাতায় দেখামিলে। অতিরিক্ত টাকা আদায়ের বিষয়ে প্রধান শিক্ষকে জিজ্ঞেসা করলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেনি। তাছাড়া কিছু কিছু ছাত্র ছাত্রীর রেজিষ্ট্রেশনে নাম ঠিকানায় ভুল করে অভিভাবকদের কে হয়রানি শিকার করেছে। কোন কোন ছাত্র ছাত্রীর নামে ভুল, কোন কোন ছাত্র ছাত্রীর মাতার নামে ভুল, কোন কোন ছাত্র ছাত্রীর পিতার নামে ভুল, কোন কোন ছাত্র ছাত্রীর মাতার নামে ঠিকানায় ভুল রয়েছে। এই ভুলের কারনে ছাত্র ছাত্রীর অভিভাবকগন আদালত পাড়ায় অর্থ ব্যয়সহ বিড়ম্বনা পড়ে হয়রানি শিকার হচ্ছে। এমন কর্মকান্ডে ছাত্র ছাত্রীর অভিভাবকগন এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের উপর কোন প্রকার আস্তা বিশ্বাস রাখতে পারছে না বলেও জানা যায় অনুসন্ধানকালে।
স্হানীয় সচেতন মহলের বিশিষ্ট ব্যক্তিগন বলেন, ঐতিহ্যবাহী ছাতিয়াইন বিশ্বনাথ হাই স্কুল এন্ড কলেজের নামের উপর চুন খালি লাগাচ্ছে বর্তমান প্রধান শিক্ষকসহ কিছু শিক্ষক। এই স্কুল নিয়ে যখন দুর্নীতি ও অনিয়মের সংবাদ প্রকাশিত হয়, তার পর পরই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিষয়টি নজরে নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার’কে। বিষয়টি জেনে আমরা মন থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা’কে ধন্যবাদ জানিয়েছি। এ সাথে ধন্যবাদ জানাচ্ছি মাধবপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সংবাদ কর্মীদের’কে। যারা এমন বিষয় গুলো তুলে ধরে আমাদের’কে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে কোথায় কোথায় কি কি অনিয়ম ও দুর্নীতি হচ্ছে।
মাধবপুর উপজেলা জুড়ে বইছে আলোচনা সমালোচনার ঝড় প্রধান শিক্ষকসহ বেশ কিছু শিক্ষকদের নিয়ে। আগামী প্রজন্ম ও সচেতন মহলের ব্যক্তিগন অপেক্ষায় রয়েছেন, তদন্তকারী কর্মকর্তাদের কাছ থেকে কি ফলাফল ঘোষণা করা হবে তা জানার জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here