ডাকসাইটে মাদক ব্যবসায়ীর আত্মকথা-সাংবাদিক সাইদুর রহমান রিমন 

0
93

এফআইআর টিভি অনলাইন ডেস্কঃ সাংবাদিক জগতের অন্যতম আইঢল লক্ষ সাংবাদিকের নয়নমনি, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সিনিয়র রিপোর্টার, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং দৈনিক দেশপত্র পত্রিকার সম্পাদক সাংবাদিক ও কলামিস্ট সাইদুর রহমান রিমন এর এক অসাধারণ লিখনি। যা সাংবাদিক সমাজের জন্য গাইড লাইন হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে সহযোগী হয়ে থাকবে। যা নিম্নোক্ত হুবহু তুলে ধরা হল।

ওহে সাংবাদিকগণ,,,,,,মাদকের বিরুদ্ধে লেখার কারণে কুমিল্লা সীমান্তে গুলি করে সাংবাদিক হত্যার পরেও তোমাদের ভয় হয় না? এখনো কোন সাহসে মাদক বিরোধী নিউজ করো? মাদক নিয়ে লেখালেখি করায় মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে দেশে ১৫ সাংবাদিক হামলার শিকার হলো, ১২ জনের বিরুদ্ধে রুজু হলো মামলা। এরপরেও তোমাদের অতি মাত্রার সাহস দেখে তাজ্জব বনে যাচ্ছি! এখনো সময় আছে নিজের প্রাণের মায়া করো, পরিবারের কথা ভাবো, ঝামেলামুক্ত জীবনযাত্রার কথা চিন্তা করে সরে দাঁড়াও, মাদক বিরোধী সাংবাদিকতা দেশের জন্য কোনো কল্যাণ বয়ে আনবে না।

তোমরা মাদক ছাড়া আর কোনো ব্যাপারে নিউজ লেখা শিখনি? দেশের কোটি কোটি টাকা পাচার, সরকারি চাকরিতে নিয়োগ ক্ষেত্রের ঘুষ, প্রতিটা টেন্ডার কাজে হরিলুট, পদে পদে অনিয়ম, দুর্নীতি – সেসব নিয়ে নিউজ লেখায় এত অনাগ্রহ কেনো?

ওহে বোকার দল,
তোমরা মাদকের শুধু কুফল দেখো, এর কল্যাণকর দিক দেখার মত জ্ঞ্যান অর্জন না করেই সাংবাদিক হয়েছো? মাদক আমদানি ও বাজারজাতের ক্ষেত্রে প্রতিদিন দেশে কি পরিমান টাকার লেনদেন ঘটে সে বিষয়ে কোনো খোঁজ রাখো? মাদকের এ টাকাতেই দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল থাকে সেইটা জানো কি? শুধু মাদক বাণিজ্যের বখরা নিয়ে কত শত সন্ত্রাসী বাহিনী চলে, কত শত প্রশাসনিক কর্মকর্তার আভিজাত্যপূর্ণ জীবন যাপন চলে তা তোমরা ধারণাও করতে পারবে না। দেশের অন্যতম চালিকা শক্তি হিসেবে গার্মেন্টস সেক্টরকে ভাবা হয়। অথচ সারা বছরে এ সেক্টরে সর্বোচ্চ ৬০ হাজার কোটি টাকার লেনদেন হয়। অথচ মাদক সেক্টরের শুধু ইয়াবা ইউনিটেই প্রতিবছর লেনদেন হয় ৮৬ হাজার থেকে ৯০ হাজার কোটি টাকা। এবার বুঝো!!

শোনো নালায়েকবৃন্দ,
একটা বিষয় ভেবে দেখতো, তুমি জেলা বা থানা পর্যায়ের একজন সাংবাদিক। ওই জেলার এসপি যদি আমার থেকে মাসোহারা নেয়, তাহলে তোমাকে কি আমার গুনে চলার টাইম আছে? তুমি মাদক নিয়ে নড়াচড়া করতে চাইলেই একের পর এক চাঁদাবাজি ও নারী নির্যাতনের মামলায় আসামী হতে থাকবে। উত্তরার মহসিন, নুরুল আমীন, উখিয়ার হাকিম, কুমিল্লার মাহফুজ বাবুসহ শত শত উদাহরণ রয়েছে। অস্ত্রের চেয়ে কলমের দাম বেশি, তাই বলে টাকার চেয়েও দামী তা কিন্তু কেউ বলেনি। মাদক ব্যবসায়ীদের হাতে নগদ টাকা থাকে, গোপনে থাকে প্রশাসনিক সহায়তা, প্রকাশ্যে থাকে অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসী। এ তিন শক্তির কাছে কলম পরাস্ত হতে বাধ্য।
(সুপ্রিয় সাংবাদিক বন্ধুরা, অপরাধীরা সংঘবদ্ধ এবং অস্ত্র, টাকায় বলীয়ান। তাদের অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াই চালাতে সাংবাদিক সমাজের ঐক্যবদ্ধতা জরুরি। তবে এটাও মনে রাখতে হবে, ন্যায়ের ভীত বড়ই মজবুত, সত্যের বিজয় সুনিশ্চিত)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here