নাসিরনগরে দুইদিন যাবৎ ক্রেতা না থাকায় বিপাকে মাছ ব্যবসায়ীরা

0
240

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর ( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) থেকেঃ আষাঢ় মাস! চলছে বর্ষাকাল, এক দিকে প্রচন্ড বৃষ্টি। অপরদিকে নদীতে বাড়তে শুরু করেছে পানি। দুইদিন যাবৎ নদীতে ধরা পড়ছে মাছ। অন্যদিকে তিন দিন যাবৎ চলছে লকডাউন। ক্রেতা শূণ্য বাজার। সকালে নাসিরনগর মাছ বাজারে গিয়ে দেখা গেছে এমন দৃশ্য। বিক্রেতারা মাছের পরসা সাজিয়ে বসে আছে। ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার সদরের। নাসিরনগর উপজেলার চারপাশে জালের মত ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে অসংখ্য নদ-নদী ও খাল বিল। এখানে রয়েছে বিশাল বড় দুইটি বিল শাপলা ও মেহেদীর হাওড়। নাসিরনগরে উল্লেখ্যযোগ্য বিলগুলোর মধ্যে রয়েছে বিল বালেঙ্গা, বলভদ্র, চাচুয়া, ঘাগটিয়া, করাতি সহ আরো অনেকে বিল। তাছাড়াও নাসিরনগরে রয়েছে একটি মাছের আড়ৎ। আড়ৎদাররা জানান প্রতি বছর বর্ষাকালে প্রতিদিন গড়ে ২৫/৩০ লক্ষ টাকার মাছ বিক্রি করা হয়। হাওড়ের মাছের মধ্যে রয়েছে বোয়াল, চিংড়ি,কাসকি, টেংরা,পুঁটি, গোলসা, বাতাসি, মলা, মিনি, টাকি, বাইম, গুতুম, শোল, গজার সহ নানা জাতের সুস্বাধু মিটা পানির মাছ। মাছ ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বললে, তারা জানান নদীতে পানি বাড়া ও প্রচন্ড বৃষ্টির কারণে দুইদিন যাবৎ মাছের আমদানী বেশী হলেও লকডাউনের কারণে ক্রেতা না থাকায় আগের তুলনায় কম মূল্যে বিক্রি করতে হচ্ছে। মাছ কেনার সময় বাগে মদিনা হোটেলের মালিক তাইফুরের সাথে কথা বললে, তিনি বলেন মাছের দাম আগের তুলনা কিছুটা সত্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here