প্রবাসীর ইমো হ্যাক করে অর্ধ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকার ! মাধবপুর থানায় জি ডি

0
308

এম এ কাদেরঃ কৌশলে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড বা ওটিপির মাধ্যমে প্রবাসীদের ইমো অ্যাকাউন্টের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কাজ করে (হ্যাকার) প্রতারক চক্র । তারপর সেই অ্যাকাউন্ট থেকেই টার্গেট প্রবাসীর স্বজনদের জানানো হতো দুর্ঘটনার মতো জরুরি অবস্থার কথা। বিপদ থেকে উদ্ধারে বিকাশের মাধ্যমে স্বজনদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয় লক্ষ লক্ষ টাকা ।

এমনি ঘটনা ঘটেছে সিলেট বিভাগের হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার ১০নং ছাতিয়াইন ইউপির শ্রীমতপুর গ্রামের দুবাই প্রবাসী মোঃ নুরুল ইসলাম (কালাম ) এর সাথে । তার উল্লেখিত ইমু আইডি 00971558385481 ( nurul kalam ) হ্যাক করে প্রতারক চক্র হ্যাকার । তারপর গত ২৭ নভেম্বর ২০২১ ইং তার দুবাই প্রবাসী বন্ধু (সিলেটের) শুক্কুর মিয়ার কাছ থেকে বিকাশ নাম্বারের মাধম্যমে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় । পরে নুরুল ইসলাম কে মোবাইলে কল করে তার বন্ধু (শুক্কুর মিয়ার) তখন বিষয়টি জানতে পারেন দুই বন্ধু যে, হ্যাকারের পাল্লায় পড়ে গেছেন তারা ।

হ্যাকার সু-কৌশলে বন্ধু (নুরুল ইসলাম) সেজে শুক্কুর মিয়ার কাছ থেকে উল্লেখিত বিকাশ নাম্বার গুলোর সাহায্যে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় । হ্যাকারের দেওয়া বিকাশ নাম্বার গুলো হল, 01870474956 ও 01757053451 এই দুটি নাম্বারে টাকা পাঠানো হয়েছে । পরে আরো অন্যান্য বন্ধুদের কেও একই কায়দায় সমস্যায় আছে বাড়ীতে আমার  মা অসুস্থত, ভাই অসুস্থত, বোন অসুস্থত, মেডিক্যালে আছে এমনি ফন্দি করে টাকা চেয়ে যাচ্ছে ক্রমাগত ভাবে । পরে নুরুল ইসলাম পরিবারের পক্ষ থেকে গতকাল (১লা ডিসেম্বর) মাধবপুর থানায় এই বিষয়ে সাধারণ ডাইরী (জিডি)এন্ট্রি করেন । জিডি নং ২৮, তাং ০১-১২-২০২১ইং । বিষয়টি মোবাইল ফোনে জানান নুরুল ইসলাম । এবং মাধবপুর থানায় জিডি কপিও প্রমাণ হিসেবে প্রদান করেন ।

সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাদের সু-নজর কামনা করছেন নুরুল ইসলাম ও তার বন্ধু শুক্কুর মিয়া । এছাড়া মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি বিনয়ের সাথে অনুরোধ রেখে ভূক্তভোগীরা বলেন, আমরা বিদেশে থেকে অনেক কষ্টের বিনিময়ে টাকা ইনকাম করে আমাদের দেশে পাঠাই আমাদের পরিবারের কাছে । আর আমরা যারা বিদেশের মাঠিতে আছি আমরা সব সময় দেশের প্রতিটি মানুষকে আমাদের পরিবার মনে করি । তাছাড়া আপনি হলেন আমাদের দেশের অভিবাবক । উক্ত বিষয়ে আপনার ও আপনার প্রশাসনের সু-চেষ্টা ও সু-দৃষ্টি কামনা করছি আমরা ভূক্তভোগীরা ।

তথ্য প্রযুক্তির কল্যাণে যোগাযোগ ব্যবস্থা, আর্থিক খাতগুলোতে যুগান্তকারী সুফল বয়ে আনলেও একই সাথে এর অপব্যবহার করে প্রতারণার নানা কৌশলরপ্ত করছে অপরাধীরা। সেই ফাঁদে পড়ে নিঃস্ব হচ্ছেন অনেকে। প্রতারণাসহ ইমো হ্যাকের মাধ্যমে একটি চক্র হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।অনেকে গড়ে তুলছেন আলিশান বাড়ি। কেউ কেউ কোটিপতি বনে গেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here