বানিয়াচংয়ে ভাড়া বৃদ্ধির দাবীতে সিএনজি ধর্মঘট।। বিকল্প পরিবহনের দাবিতে উত্তাল যাত্রী সাধারণ

0
81

আকিকুর রহমান রুমন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের বানিয়াচং-হবিগঞ্জ সড়কে সিএনজি অটোরিকশার অরাজকতা রুখতে বিকল্প পরিবহনের দাবিতে উত্তাল সমগ্র দেশ-বিদেশ থেকে বানিয়াচংয়ের যাত্রী সাধারণের।

ইতিমধ্যে বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বানিয়াচং-হবিগঞ্জ সড়কে বিকল্প পরিবহন বি আর টিসি বাসের দাবিতে ফেইসবুকসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে দাবি জানিয়েছেন যাত্রী সাধারণ।
এসব বিষয়ে খোঁজ নিয়ে এক অনুসন্ধানে দেখা যায়,দীর্ঘদিন যাবত হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং-হবিগঞ্জ সড়কে সিএনজি অটোরিকশায় চলাচল করছেন ওই এলাকার লক্ষাধিক মানুষ।সম্প্রতি একেক সময় একেকভাবে মনগড়া অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার অভিযোগ উঠে সিএনজি চালকদের বিরুদ্ধে। তাদের এমন মনগড়া বিষয়টি নিয়ে দেশ-বিদেশে অবস্থানরত বানিয়াচংবাসী সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।তাদের এমন ক্ষোভের বিষয়টি প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হয়। এরপরই বুধবার(১১মে) সকালে বানিয়াচং উপজেলা প্রশাসন সিএনজি শ্রমিক নেতাদের সাথে এক জরুরী সভার মাধ্যমে সিএনজির ভাড়া জনপ্রতি ৪০টাকা নির্ধারণ করেন। বৃহস্পতিবার (১২ মে)যাত্রী সাধারণের হয়রানি রুখতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে হবিগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কে বিকল্প পরিবহন বিআরটিসি বাসের দাবিতে উত্তাল বানিয়াচংয়ের সোশ্যাল মিডিয়া। যাত্রীরা লিখেছেন বানিয়াচং-হবিগঞ্জ সড়কে সিএনজির ভাড়া বৃদ্ধির অরাজকতা রুখতে হলে বিকল্প পরিবহন দরকার।বিআরটিসি বাসের দাবী জানিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেও দেখা গেছে অনেককে।

অপরদিকে দিকে সিএনজি শ্রমিকরা সকাল ৬টা থেকে ৫০টাকা ভাড়া বৃদ্ধির দাবী আদায়ের লক্ষ্য তারা গাড়ি চলাচল বন্ধ করে দেন এই সড়কে।পরে এই বিষয়টিও প্রশাসনকে অবগত করা হলে এবং প্রশাসনেরও সরজমিনে দৃষ্টি গোচর হলে,বানিয়াচংয়ের সিএনজি মালিক নেতৃবৃন্দ ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মা সিংহ তাদের এই দাবী পূরনের বিষয়ে আলাপ আলোচনা করেন।
এবং তাদেরকে চলতি মাসের উপজেলা মাসিক আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে ভাড়া বৃদ্ধি নির্ধারনের বিষয়ে আলাপ আলোচনা করে উন্মুক্ত ভাবে ঘোষণা করা হবে বলে আশ্বাস প্রদান করা হবে জানিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন।
এবং ৪০টাকা ভাড়া করেই গাড়ি চলাচল করার নির্দেশ প্রদান করা হয়।তারপর থেকে এই সড়কে পুনঃরায় সিএনজি চলাচল শুরু করতে দেখা যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here