ভারতসহ সাত দেশের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

0
187

এফআইআর টিভি অনলাইন ডেস্কঃ দেশে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার ভারত, নেপালসহ সাতটি দেশ থেকে ফ্লাইট চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। পাশাপাশি ভারত, নেপাল, বতসোয়ানা, মঙ্গোলিয়া, নামিবিয়া, পানামা, দক্ষিণ আফ্রিকা ও তিউনিশিয়া থেকে বাংলাদেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

করোনা মহামারি সংক্রমণ রোধে ২০ দেশের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের নির্দেশনা পরিবর্তন করে সোমবার (০৫ জুলাই) সার্কুলার জারি করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

বেবিচকের ফ্লাইট স্ট্যান্ডার্ড ও রেগুলেশন্স বিভাগের সদস্য গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী এম জিয়া-উল কবির স্বাক্ষরিত এ সার্কুলার জারি করা হয়। এতে ২০টি দেশকে ‘এ’ ও ‘বি’ গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে।

‘এ’ গ্রুপের দেশগুলো হচ্ছে-বতসোয়ানা, ভারত, মঙ্গলিয়া, নমিবিয়া, নেপাল, পানামা, সাউথ আফিকা, তেউনিসিয়া। নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ‘এ’ গ্রুপের দেশগুলো থেকে কোন বিদেশি নাগরিক দেশে প্রবেশ করতে পারবেন না।

গত ১ জুন ১১টি দেশকে ‘এ’ ক্যাটাগরিভুক্ত করে বেবিচক। সেই দেশগুলো হল- আর্জেন্টিনা, বাহরাইন, কলম্বিয়া, ব্রাজিল, ভারত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, প্যারাগুয়ে, ত্রিনিদাদ ও টোবাগো, উরুগুয়ে।

সোমবার নতুন নির্দেশনায় ‘এ’ গ্রুপ থেকে ভারত ও নেপাল বাদে বাদ দেওয়া হয় বাকি নয় দেশের নাম।

‘বি’ গ্রুপের দেশগুলো হচ্ছে- আজেন্টিনা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, কোষ্টারিকা, জর্জজিয়া, কুয়েত মালয়েশিয়া মালদ্বীপ, ওমান, আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, উরুগুয়ে।

‘এ’ গ্রুপের দেশগুলোতে বাংলাদেশের কোনো নাগরিক ভ্রমণে গিয়ে সেখান থেকে ১৫ দিনের মধ্যে তাদেরকে দেশে ফিরতে হবে। এর বেশি হলে তারা বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারবেন না। এছাড়া ভ্রমণের ১৫ দিনের মধ্যে যে সব যাত্রী দেশে ফিরবেন তাদেরকে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

‘বি’ গ্রুপের দেশ থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের ক্ষেত্রে যাত্রীদের দুই ডোজের ভ্যাকসিন নিতে হবে।

বেবিচকের ওই সার্কুলারে আরও বলা হয়েছে, এক্ষেত্রে তাদের নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। বিদেশে ফ্লাইটে ওঠার আগেই হোটেল বুকিং করতে হবে, যা বোডিং কার্ড ইস্যুর সময় চেক করবে এয়ারলাইন্সগুলো।

কুয়েত এবং ওমান থেকে দেশে আসলে তিন দিন হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন থাকতে হবে। নির্দেশনা অনুযায়ী কুয়েত এবং ওমান থেকে দেশে আসতে হলে করোনা টেস্ট করে নেগেটিভ রিপোর্ট থাকতে হবে। দেশে আসার পর তিন দিন হোটেলে নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। এজন্য বিদেশ থেকে আসার আগেই হোটেল বুক করতে হবে। দেশে আসার তিনদিন পর যাত্রীদের করোনা টেস্ট করানো হবে (যাত্রীর খরচে)। রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তারা বাকি ১১ দিন বাড়িতে গিয়ে কোয়ারেন্টিনে থাকবেন। ভ্যাকসিন দুই ডোজ নিলেও কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

এর আগেও ২০ দেশের ওপর বিধিনিষেধ জারি করে ৪ জুন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। তবে এবার দেশের সংখ্যা একই থাকলেও কয়েকটি দেশে ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে কয়েকটি দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। এর আগে ৩৯টি দেশের ওপর শর্ত দিয়ে ১ মে থেকে শর্তসাপেক্ষে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করেছিল বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here