মাধবপুরে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে একটি পরিবারকে গৃহবন্ধি 

0
142

মোঃ জসিম উদ্দিন,স্টাফ রিপোর্টারঃ  হবিগঞ্জ মাধবপুর উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোঃ আনোয়ার হোসেন সহ তার পরিবারের সকল কে গৃহবন্দি করে রাখে। ঘটানাস্থলে গিয়ে দেখা যায় উপজেলার ভারত বাংলাদেশ সিমান্তবর্তি এলাকা ১ নং ধর্মঘর ইউপির ২নং ওয়ার্ডের জয়নগর গ্রামের মোঃ মুর্তজ আলীর ছেলে মোঃ আনোয়ার হোসেন(৪০) ও তার পরিবারের ২৫ জন লোক নিয়ে তিনটি পরিবার এর বাড়িটিকে চারদিকে রাস্তা বন্দ করে গৃহবন্দী করে রাকে তাদের পাশের বাড়ির মাদক ব্যবসায়ী ও ভুমিখেকো, মামলাবাজ মোঃ আব্বাস আলীর ছেলে মোঃ শাহেদ আলী (৫৫)। জানা যায় যে গত ৭মাষ পূর্বে শাহেদ আলীর ভাই মোঃ সিরাজ আলী আত্বহত্যা করে। কিন্তুু মামলাবাজ শাহেদ আলী আনোয়ার হোসের ছেলে কে সহ বেশ কিছু লোককে আসামি করে হবিগঞ্জ আদালতে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। আদালত ২ বার ময়না তদন্ত করে ফলাফল আসে আত্বহত্যা। এমতাবস্থায় আদালতের মাধ্যমে মিত্যা মামলা দিয়ে টাকা পয়সা আত্বসাত না করতে পারায় মোঃ আনোয়ার আলীর পরিবারের সকল সদস্যদের ভিবিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছ। এমনকি আনোয়ার মিয়ার বাবা একটি দুর্ঘটনাজনিত কারনে একটি পা হারিয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্চিন্ন করে রাখায় আনোয়ার মিয়ার বাবার অক্সজেন সিলিন্ডার সহ ঘরের ফ্যন বাতি চালাতে হয় ভাড়া করে আনা জেনারেটর দিয়ে। যে কোন মুহুর্তে আনোয়ার মিয়ার বাবা কে হসপিটালে নিতে হতে পারে। তবে শাহেদ আলি তিন দিখের রাস্তা বন্ধ করায় তাদের একমাত্র চলাফেরার রাস্তা হল বাড়ির উত্তর পাশ দিয়ে ভারত সিমান্তে সোনাই নদি পার হয়ে প্রায় ৮কিলোমিটার পথ পায়ে হেটে রাস্তায় উটতে হয়। গতকাল ০৯/১০/২০২১ ইং তারিখে মোঃ আনোয়ার হোসেনের সৌদিআরব ফিরত ছোট বোন মোছাঃ রুনা আক্তার(২৫) কে রাত ৯টার দিখে ধর্ষনের উদ্দেশে, শাহেদ আলী, তার ভাই তৌয়ব আলী(২৫),রহমত আলী (৪৮),আমির আলী(২৩),মুকসুদ আলী(৪০),মাহমুদ আলী(৪৫) কামাল মিয়া(৬০),মোঃ শ্যমল মিয়া(৩০)সহ আরও অনেকে মিলে তাকে বাড়ির পাশ থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে রুনা আক্তারের ভাই চাচারা এসে তাকে রক্ষা করে। কিন্তুু তার গালার ২ভরি ওজনের নেকলেসটি গলা থেকে চিরে নিয়ে যায় মোঃ শাহেদ আলী। এবিষয়ে মাধবপুর থানায় হাজির হইয়া মোঃ আনোয়ার আলী বাদি হয়ে ১০/১০/২০২১ ইং তারিখে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। আনোয়ার হোসেনের বাড়ির তিনপাশে শাহেদ আলী যায়গা বিদায় সে বাড়ির তিনপাশেই রাস্তা বন্ধ করে দেয়। এতে ভোগান্তিতে পরে আনোয়ারের মাদ্রাসায় পড়ুয়া ২১ পাড়ার হাফেজ মোঃ রিপর মিয়া(১২).৪র্থ শ্রেনীতে পড়ুয়া মোঃ উজ্জল মিয়া(১০), বন্ধ হয়ে যায় তাদের শিক্ষা প্রতিষ্টানে যাওয়ার রাস্তা। এমনকি সংবাদ সংগ্রহ করতে যাওয়া সংবাদকর্মীরা আনোয়ার মিয়ার বাড়িতে বহুকষ্টের বিনিময়ে বাড়িতে ডুকে। এ ব্যপারে স্থানিয় ইউপির ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ মামুন মিয়ার সাথে কথা বলে যানা যায় যে শাহেদ আলীর ভাইয়ের আত্বহত্যাার পর থেকেই ভিবিন্ন ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে আসছে শাহেদ আলী। এবং তিনি আরও বলেন যে সামাজিক ভাবে সমস্যাটি সমাধান করার জন্য শাহেদ আলী চাচা বর্তমান ইউপি সদস্য ৩নং ওয়ার্ডের কামাল মেম্বার কে নিয়ে ১নং ধর্মঘর ইউপি চেয়ারম্যান জনাব মোঃ কামাল সাহেব কে অবগত করে। এখন শাহেদ আলীর চাচা কামাল মেম্বার কে সংবাদকর্মীরা যখন এ বিষয়ে যানতে চায় যে আপনার ভাতিজা শাহেদ আলী ও আনোয়ার হোসেনের বিষটা সামাজিক ভাবে মিমাংস করে দিতে, তখন তিনি উত্তর দেন আমি নিজেই তাদের বাড়ির চারপাশের রাস্তা বন্ধ করে দিতে। এমনকি আনোয়ার মিয়ার পরিবারের সকলকে ওনি এই এলাকাছাড়া করবে। যা আমাদের ক্যাামেরার ভিডিও ফুটেজে রেকর্ড করা আছে। এমতাবস্থায় বাংলাদেশ সরকার মাননীয় প্রধান মন্ত্রি সহ সকল আইন শৃংকলা বাহির কাছে আনোয়ার মিয়ার অসস্থ বাবা কে বাচাতে ও এই পরিবারের সকলে যেন স্বাধীন দেশে স্বধীনতা নি বাচতে পারে এমন আকুল আবেদন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here