মাধবপুরে সোর্স কুদরত এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে !! থানায় অভিযোগ দায়ের 

0
70

এম এ কাদেরঃ হবিগঞ্জের মাধবপুরে সোর্স কুদরত কর্তৃক ডিবি পরিচয়ে মোবাইল চুরির অভিযোগ ! তথ্য প্রদানকারী খোকন আহত !! থানায় অভিযোগ দায়ের।

দীর্ঘ দিন যাবত পুলিশ, ডিবি ও র্যার এর সোর্স হিসেবে সোর্স কুদরত হয়রানি করে আসছে হবিগঞ্জ জেলা তথা মাধবপুর উপজেলাসহ বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষকে। তার চাহিদামত খুশি না করলে মাদকসহ বিভিন্ন অপকর্মের জড়িয়ে ফাসিয়ে দেওয়ার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। সেই সোর্স মানুষকে হয়রানি করে আসছে এমন অভিযোগ রয়েছে এলাকাসহ বিভিন্ন জায়গায়। সোর্স সুবাদে কাজ করায়, প্রশাসনের নাম ভাংগিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে ভিন্ন কৌশলে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে বলেও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে অহরহ।

উল্লেখ যে, মাধবপুর উপজেলায় ডিবি পরিচয়ে মোবাইল চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। চুরির তথ্য দাতাকে রাতের আধারে হামলা করে আহত করেছে সোর্স কুদরতের সঙ্ঘবদ্ধ চোর চক্র।

জানা যায়, মাধবপুর উপজেলার হরিতলা গ্রামের আনোয়ার আলীর ছেলে কথিত পুলিশ ও ডিবির সোর্স কুদরত আলী এলাকায় নীরিহ লোকজন কে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন ভাবে জিম্মি করে টাকা আদায় করছে এবং
এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে
। এর জন্য ভয়ে এলাকার লোকজন মুখ খোলে কিছু বলেন না বা প্রতিবাদ করার সাহস পায় না।

সম্প্রতি উপজেলার ছাতিয়াইন ইউনিয়নের এক্তারপুর গ্রামের জনৈক ফালান মিয়ার বাড়ি থেকে ডিবি পরিচয় দিয়ে ৩টি দামী মোবাইল নিয়া আসে। পরে ঘটনা জানি জানি হয়ে গেলে কুদরত আলীর চাচাতো ভাই খোকন মিয়া জনৈক ব্যাক্তি কে জানায় যে কুদরত ই ডিবির পরিচয়ে মোবাইল চুরি করে। সাথে সাথে লোকজন কুদরত আলির বাড়ি ঘেরাও করে এবং তাকে বলে মোবাইল গুলি দিয়া দেওয়ার জন্য। কুদরত তাদের কাছ থেকে দু দিন সময় নেন যে এর ভিতরে মোবাইল ফেরত দিবে।

অন্যদিকে খোকন কেন এ তথ্য দিল তাকে মোবাইলে ভয়েস ম্যাজেস সহ ফোনে প্রাণ নাসের হুমকি দিতে থাকে। এ ব্যাপারে খোকন মাধবপুর থানা মামলা দায়ের করে। এতে কুদরত আর ও ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল রাত ৭ই এপ্রিল ৯ টার দিকে মেটাডর কোম্পানির পাশে খোকন মিয়ার উপর অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে তাকে ক্ষত-বিক্ষত করে রাস্তায় ফেলে চলে যায়।

পরে স্থানীয় লোকজন খোকনকে উদ্ধার করে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে। পরবর্তীতে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

সোর্স কুদরত টাকার বিনিময়ে যে কোন ব্যক্তিকে মাদকসহ যে কোন অপরাধের কাজে ফাসানো তার জন্য কোন কিছুই নয়। যার ফলে কুদরত কে দেখলে সাধারন মানুষ আতংকিত হয়ে যায়। শুধু তাই নয় কুদরত এর দ্বারা অগনিত মানুষ হয়রানির স্বীকার হচ্ছে।
এলাকার সচেতন মহলের নাগরিকদের জোর দাবি সোর্স কুদরত’কে অতি দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক। আর না হলে এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা বিনষ্ট হয়ে যাবে।

এই ব্যাপারে মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়েছি সোর্স কুদরতের বিরুদ্ধে, খুব দ্রুত আইনি ব্যবস্হা গ্রহন করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here