মাধবপুরে ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন ! ধর্ষক আটক

0
20

মাসুদ লস্কর, স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জের মাধবপুরে উপজেলায় সপ্তম শ্রেণীর স্কুলছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে রাতেই অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে (৬মে) শুক্রবার দুপুরে। উপজেলার ছাতিয়াইন ইউনিয়নের এক্তিয়ারপুর গ্রামের ঠাকুরপাড়া মহল্লায়। তবে ভিকটিমের পরিবার এটি ভয় পেয়ে প্রথমে গোপন রাখেন বলে জানিয়েছেন।

ঘটনার পর কিশোরী তার মাকে ওই ঘটনা জানালে তার মা অভিযুক্তের পরিবারকে জানান। কিন্তু তারা বিষয়টি কর্ণপাত না করায় স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রউফকে জানালে তিনি আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেন। এরপর ভিক্টিমকে নিয়ে রাতেই তার মা থানায় আসলে রাতভর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ব্যক্তি ওই গ্রামের মধু মিয়ার ছেলে জয়নাল মিয়া (১৮)। সে নোয়াপাড়া সায়হাম কটন মিলে শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। এলাকাবাসী জানায় জয়নালের স্বভাব চরিত্র মোটেও ভাল নয়।

পুলিশ ও ভিকটিমের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ওই গ্রামের একই বাড়ির নুরুল আমিনের মেয়ে তপুরা আক্তার মাসকুরা (১৩) এক্তিয়ারপুর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী। শুক্রবার দুপুরে খেলার জন্য তার বান্ধবী রুপালীকে ডাকতে যায় পাশের ঘরে। বান্ধবীকে না পেয়ে ফেরার সময় ডাক দেয় ঘরের ভেতরে থাকা জয়নাল। এসময় পানি আনার জন্য জয়নাল জগ বাড়িয়ে দেয়। টিউবওয়েল থেকে পানি নিয়ে ঘরে প্রবেশ করার সাথে সাথে জয়নাল ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। এরপর মুখ চেপে চেতনানাশক ঔষধ খাইয়ে তাকে ধর্ষন করে। ২ থেকে ৩ ঘন্টা পর জ্ঞান ফিরে আসলে বিষয়টি মাকে খুলে বলে ভিক্টিম। পরে মা অভিযুক্তের পরিবারকে জানালে বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য চাপ দেয় অভিযুক্তের পরিবার। কাউকে বললে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়া হয়।

মাধবপুর থানার (ওসি তদন্ত) গোলাম কিবরিয়া হাসান জানান, অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে রাতভর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছি। ভিক্টিমকে মেডিকেল পরিক্ষার জন্য হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ভিক্টিমের মা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here