লালমনিরহাটের পাটগ্রামে পিতার দ্বিতীয় বিয়েতে অভিমানে মেয়ের আত্নহত্যা

0
191

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ পিতা দ্বিতীয় বিয়ে করায় অভিমান করে মেয়ে মরিয়ম বেগম (২৩) নামে এক গৃহবধূ নিজ শরীরে কেরোসিন ঢেলে আত্নহত্যা করেছেন । বৃহস্পতিবার ( ২৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাস টার্মিনাল এলাকায় বাবার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সকালে অগ্নিদগ্ধ মরিয়মকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে যমুনা সেতুর সিরাজগঞ্জ এলাকায় মরিয়মের মৃত্যু হয়।

এক সন্তানের জননী মরিয়ম পাটগ্রাম উপজেলার ওই এলাকার জহুরুল ইসলামের মেয়ে এবং পাশ্ববর্তি হাতীবান্ধা উপজেলার ভোটমারী গ্রামের শামীম মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জেলার পাটগ্রাম পৌর বাস টার্মিনাল এলাকার জহুরুল ইসলাম তার
প্রথম স্ত্রী থাকার পরেও দ্বিতীয় বিয়ে করার কারণে অভিমান করে প্রথম স্ত্রী বাড়ি থেকে বেড়িয়ে যান। অপর দিকে বাবার দ্বিতীয় বিয়ের খবর পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে বৃহস্পতিবার ভোটমারী স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে চলে আসেন মেয়ে মরিয়ম বেগম। এবং দ্বিতীয় বিয়য়ে নিয়ে বাবা-মেয়ের মাঝে ঝগড়াঝাঁটি হয়।
এ ঘটনার পর বাবার সাথে অভিমান করে ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে নিজের শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন মরিয়ম বেগম। বুঝতে পেয়ে বাবা মেয়েকে বাঁচাতে গিলে তিনিও আগুনে দগ্ধ হন।

আসে পাশের লোকজন খবর পেয়ে দগ্ধ বাবা-মেয়েকে উদ্ধার করে প্রথমে পাটগ্রাম ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলেও মেয়ে মরিয়মের পরিস্থিতির অবনতি হলে রাতেই তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পিতা দ্বিতীয় বিয়ে করার কারনে অভিমানে মেয়েটা এমনটা করেছেন। বাবা-মেয়ে দু’জনই দগ্ধ হয়েছেন। মেয়েটির শরীরের অধিকাংশই স্থানই পুড়ে গেছে।
এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন অভিযোগ পাইনি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here