সুন্দরগঞ্জ পৌরশহরের রাস্তায় দুর্ভোগে পথচারি

0
101

 নুর আলম সরকার, সুন্দরগঞ্জ থেকেঃ শীতকাল, বৃষ্টি বাদলও নেই। অথচ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ পৌর সড়কে হাটু পানি এবং কাঁদা। বন্ধ হয়ে গেছে প্রায় যোগাযোগ ব্যবস্থা। কবে মেরামত হবে পানি নিস্কাশন নালা, তা কেউ জানে না। চরম দুর্ভোগে পথচারিসহ বিভিন্ন যানবাহন। বিশেষ করে স্কুল কলেজগামি শিক্ষার্থীরা চরম বিপাকে পড়েছে। উপজেলার ঐতিহ্যবাহি পৌরসভার মীরগঞ্জ বাজারের ভিতর দিয়ে রংপুর গামি সড়কটির প্রায় ৩০০মিটার পর্যন্ত পানি নিস্কাশন নালাটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। সে কারনে বাসাবাড়ি থেকে নেমে আসা পানি জমে কাঁদায় পরিনত হয়েছে। বর্তমানে সড়কটি দিয়ে চলাচল বন্ধ হয়ে পড়েছে। ওই এলাকার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সমুহ চরম বিপাকে পড়েছে। ময়লা,অর্বজনা, নেংরা পানির গন্ধে এলাকার পরিবেশ মারাত্বক ভাবে দুষিত হয়ে পড়েছে। ওই এলাকায় অবস্থিত জনতা ব্যাংক লিমিটেডে টাকা উত্তোলন করতে আসা গ্রাহক রেজাউল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিনের সমস্যা এটি। অথচ আজও সেটি মেরামত করা হয়নি। মীরগঞ্জ বাজারটি পৌরসভার একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। তিনি বলেন, কাঁদা এবং পানির কারনে ব্যাংকে প্রবেশ করা যাচ্ছে না। স্থানীয় ব্যবসায়ী জানান, কবে এই সমস্যার সমাধান হবে, তা আল্লাহ জানেন। হাটু পানি জমে থাকায় এবং কাঁদার কারনে এই এলাকায় এখন কোন গ্রাহক আসতে চায় না। দ্রুত পানি নিস্কাশনের নালাটি মেরামত একান্ত দরকার। স্কুল শিক্ষার্থী লাকী বেগম জানান, পানি এবং কাঁদার কারনে প্রতিদিন জামা কাপড় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে অনেক শিক্ষার্থী। পৌর কাউন্সিলর ছামিউল ইসলাম জানান, পানি নিস্কাশন নালার কাজ চলছে। অল্প সময়ের মধ্যে নালাটি নিমার্ণ হবে। তখন আর এ সমস্যা থাকবে না। তাছাড়া ভ্রামম্যান উপায়ে পানি বের করে দেয়ার মত কোন পথ নেই। সে কারনে সমস্যাটা দেখা দিয়েছে। পৌর মেয়র আব্দুর রশিদ রেজা সরকার ডাবলু জানান, এটি দীর্ঘ ৪ হতে ৫ বছরের সমস্যা। আমি পৌর মেয় নিবার্চিত হওয়ার আগে ওই এলাকায় পানি নিস্কাশনের জন্য নালা নিমার্নের টেন্ডার হয়েছে। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের টালবাহানার কারনে নালা নিমার্ণ বিলম্ব হচ্ছে। আশা করা যাচ্ছে অল্প সময়ের মধ্যে নালা নিমার্ণ হয়ে যাবে। তখন আর সমস্যাটি থাকবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here