৭ বছরে অবৈধ সিএনজি টোকেন বানিজ্যে কোটিপতি সিলেটের নুরুল হক

0
107

এফআইআর টিভি অনলাইন ডেক্সঃ সিলেটে কড়া লকডাউনের মধ্যে বন্ধ হয়নি শীর্ষ চাঁদাবাজ নুরুলের টোকেন বাণিজ্য। লকডাউন ও সকল নির্দেশকে বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে সিলেটে প্রায় তিন হাজার অবৈধ রেজিস্ট্রেশন বিহীন সিএনজি নুরুলের বিশেষ টোকেনের মাধ্যমে দেদারছে চলাচল করছে।

সিলেটের চাঁদাবাজ টোকেন নুরুলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় নিউজ করায় ক্রাইম সিলেট পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টারকে বিভিন্ন মিথ্যা মামলা ও প্রাণ নাশের হুমকি দেওয়া হয় । পরে জনৈক সাংবাদিক নিজের নিরাপত্তা চেয়ে ২০ এপ্রিল ২০২১ ইং তারিখে শাহপরাণ (রহঃ) থানায় সাধারণ ডায়রী করেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, টোকেন নুরুলের বাবা জীবিকা নির্বাহ করতেন তার নিজ গ্রাম ও আশ-পাশের গ্রামের বাড়িতে শিকর মাটি বিক্রি করে।এবং তিনি একসময় মাছ বাজারে পলিথিন বিক্রি করে চলতেন। নিজ এলাকার হরিপুর বাজারে মাত্র কয়েক বছরের মধ্যে নম্বরবিহীন সিএনজি গাড়িতে অবৈধ টোকেন বিক্রি করে হয়েগেছে রাতারাতি কোটিপতি। তাকে একসময় সমাজের মানুষ দূর-দূর করতেন। অনেক ভূঁইফোড় নেতারা টোকেন বানিজ্য করে আয়কৃত টাকার ভাগের কারনে থাকে শেল্টারও দিয়ে থাকেন বলে উঠে এসেছে।

সিএনজি চালক সমিতি নামে বৈধ-অবৈধ সিএনজি-অটোরিকশায় টোকেন বিক্রি করে প্রতি মাসে ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকা আদায় করছে টোকেন নুরুল। ফলে প্রতি বছর রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। জৈন্তাপুর, গোয়াইনঘাট ও কানাইঘাট উপজেলার প্রশাসনের গাফিলতির কারণে বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ যান চলাচল। বন্ধ হচ্ছে না সড়ক দূঘর্টনা ও লাশের মিছিল। শ্রমিক নেতারা টোকেনের টাকার একটি বড় অংশ পুলিশের পকেটে যাওয়ার দাবি করলেও পুলিশ এসব অস্বীকার করছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here